,

করোনা এমনিতে কীভাবে যাবে? প্রশ্ন ডা. এবিএম আবদুল্লাহর

প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক প্রখ্যাত মেডিসিন বিশেষজ্ঞ এবিএম আবদুল্লাহ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে বলেছেন, দেশ থেকে এমনিতে করোনা কীভাবে চলে যাবে? আমার কাছে মনে হয় এই কথাটা যৌক্তিক না। দেশের শীর্ষস্থানীয় একটি সংবাদমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা জানান।

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের যথার্থতা ও এর কোনো বৈজ্ঞানিক ভিত্তি আছে কিনা, জানতে চাইলে অধ্যাপক ডা. এবিএম আবদুল্লাহ বলেন, তিনি কোন পরিপ্রেক্ষিতে, কীভাবে এটা বলেছেন, কোনো বিশেষজ্ঞের মতামত নিয়েছেন কিনা, আমি জানি না। তবে, এমনিতে কীভাবে করোনা চলে যাবে তা বুঝতে পারছি না। আমার তো মনে হয় না এমনিতেই যাবে। একটা হয় যে, মানুষ যদি বেশি আক্রান্ত হয়ে যায়, তাহলে সাধারণ মানুষের মধ্যে একটা প্রতিরোধ ক্ষমতা (অ্যান্টিবডি) ডেভেলপ করে, যাকে হার্ড ইমিউনিটি বলে। এখন উনি কি ওই সেন্সে বলেছেন কিনা, তা তো বলতে পারছি না। তবে, এমনিতেই করোনা চলে যাবে, আমার কাছে মনে হয় এই কথাটা যৌক্তিক না। এমনিতে কীভাবে যাবে?

এর আগে স্বাস্থ্যমন্ত্রী গতকাল শনিবার (১৫ আগস্ট) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদৎবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভায় বলেন, ভ্যাকসিন আসুক বা না আসুক কোভিড-১৯ বাংলাদেশ থেকে এমনিতেই চলে যাবে। যেখানে পুরো পৃথিবী ভ্যাকসিনের জন্যে অধির আগ্রহে অপেক্ষা করছে, সেখানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মনে করছেন ভ্যাকসিন ছাড়াই করোনা চলে যাবে।

অন্যদিকে বাস্তবতা ভিন্ন। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যানুযায়ী, করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে দেশে প্রতিদিন গড়ে ৩০ জনেরও বেশি মানুষ মারা যাচ্ছেন। নতুন শনাক্তের সংখ্যাও গড়ে প্রায় তিন হাজার।

রোববার (১৬ আগস্ট) দুপুরে করোনাভাইরাস বিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে আরও ২ হাজার ২৪ জনের দেহে। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ২ লাখ ৭৬ হাজার ৫৪৯ জন। এছাড়া আক্রান্তদের মধ্যে আরও ৩২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৩ হাজার ৬৫৭ জন। এদের মধ্যে ২৫ জন পুরুষ এবং ৭ জন নারী।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এ সময়ের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন আরও ১ হাজার ৩১৫ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৫৮ হাজার  ৯৫০ জন।

(Somoytv)

     এ জাতীয় আরো খবর