,

প্রতিষ্ঠার ৩২ বছর পর জকিগঞ্জ সরকারী কলেজে ডিগ্রী কোর্স চালু

আল মামুন,জকিগঞ্জ::
দীর্ঘ তিন দশকের অপেক্ষার অবসান ঘটেছে জকিগঞ্জবাসীর। পাঁচ বছর আগে দেয়া শিক্ষামন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী জকিগঞ্জ সরকারি কলেজে ডিগ্রী কোর্স চালুর সিদ্ধান্ত দিয়েছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত কলেজ পরিদর্শক ড. মো: মনিরুজ্জামান জানান, অধিভুক্তি কমিটির ৮২তম সভার সুপারিশ, একাডেমিক কাউন্সিল ও সিন্ডিকেট সভার অনুমোদন সাপেক্ষে ২০১৭-১৭ শিক্ষাবর্ষে ডিগ্রি কোর্স অধিভ’ক্তি প্রদান করা হয়েছে। ৮ নভেম্বর বুধবার কলেজ পরিদর্শক মনিরুজ্জামান এ অধিভ’ক্তিপত্রে স্বাক্ষর করেন। বিএসএস কোর্সে ১০০ জন শিক্ষার্থী ভর্তির সুযোগ পাবেন। বাংলা, ইংরেজি, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, অর্থনীতি ও ইতিহাস বিষয় বিএসএস কোর্সে অন্তভ’ক্ত রয়েছে। জকিগঞ্জ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ এএসএম শব্বীর আহমদ অধিভ’ক্তি পত্র পাওয়ার বিষয়টির সত্যতা স্বীকার করেছেন। সাবেক এমপি হাফিজ আহমদ মজুমদারের আমন্ত্রনে হাফিজ মজুমদার ট্রাস্টের বৃত্তি বিতরণীতে ২০১৩ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি শিক্ষামন্ত্রী জকিগঞ্জ আসেন। সেদিনই জকিগঞ্জ সরকারি কলেজের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে তিনি কলেজের ডিগ্রী চালুর প্রতিশ্রুতি দেন।
চিরবঞ্চিত পশ্চাৎপদ জকিগঞ্জকে এগিয়ে নিতে জকিগঞ্জ সরকারী কলেজে ডিগ্রিসহ অনার্স চালুর দাবী দীর্ঘদিনের। জকিগঞ্জে বর্তমানে ২৪টি হাইস্কুল ও ২৩টি মাধ্যমিক মাদ্রাসা রয়েছে। উপজেলায় ৩টি আলীয়া মাদ্রাসাসহ ৫টি কলেজ রয়েছে। উপজেলা থেকে জেলা শহরের দুরত্ব এবং দরিদ্রতার কারণে অধিকাংশ শিক্ষার্থীই ঝড়ে পরে উচ্চ শিক্ষা থেকে। এ ক্ষেত্রে জকিগঞ্জ সরকারী কলেজে ডিগ্রিসহ অনার্স চালুর যৌক্তিকতাও জোড়ালো । জকিগঞ্জ উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদ, জকিগঞ্জ নাগরিক কমিটি, জকিগঞ্জ সচেতন নাগরিক সমাজ, ইয়থ অব জকিগঞ্জ,জকিগঞ্জ সরকারি কলেজ ছাত্র ঐক্য পরিষদ, জকিগঞ্জ প্রবাসী ঐক্য পরিষদসহ বিভিন্ন সংস্থা বিভিন্ন সময়ে মানববন্ধন, স্মারকলিপি প্রদান, সড়ক অবরোধসহ নানা কর্মসুচী পালন করেছে এ দাবী বাস্তবায়নের জন্য। ২০১২ সালের জুন মাসে জকিগঞ্জ কলেজসহ উপজেলা সকল শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ, মানবন্ধন, প্রতিবাদসভা, স্মারকলিপিপ্রদানসহ টানা কর্মসুচী পালনসহ হরতাল ঘোষনা করলে তৎকালীন স্থানীয় এমপি ডেকে নিয়ে তাদের কলেজে ডিগ্রিসহ অনার্স চালুর আশ্বাস দিলে আন্দোলন স্থগিত করে। জকিগঞ্জ সরকারী কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর বিদ্যুৎ কুমার সাহা ২০১৩ সালের ১৮ এপ্রিল সংশ্লিষ্ট দপ্তরে কলেজে ডিগ্রী শাখা চালুর ব্যাপারে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দাখিল করেন। তিনি একাধিকবার শিক্ষামন্ত্রীর সাথে দেখা করে জকিগঞ্জ সরকারী কলেজে ডিগ্রি চালুর তাগিদও দিয়েছিলেন।
জকিগঞ্জ সরকারি কলেজে ডিগ্রি কোর্স চালুর ব্যাপারে বর্তমান অধ্যক্ষ শব্বীর আহমদ যোগদানের পর থেকেই আন্তরিকভাবে কাজ করেন। রুপালী ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান ড. আহমদ আল কবির, উপজেলা চেয়ারম্যান লোকমান উদ্দিন চৌধুরী, জেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি মাসুক উদ্দিন আহমদ, যুক্তরাজ্য ছাত্রলীগের সভাপতি তামিম আহমদ অমি, পৌর মেয়র খলিল উদ্দিনসহ রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দের আন্তরিক প্রয়াস, শিক্ষার্থীদের ধারাবাহিক আন্দোলন, নাগরিক উদ্যোগ সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় জকিগঞ্জ সরকারি কলেজে ডিগ্রি কোর্স চালু হয়েছে। জন্য এখন এখানে অনার্সসহ বিএ কোর্স চালু করা সময়ের দাবী।
সুবিধা বঞ্চিত সীমান্ত এলাকা জকিগঞ্জে উচ্চ শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিতে স্থানীয় শিক্ষানুরাগীদের সহযোগিতা ও সাবেক মন্ত্রী এম.এ হকের প্রচেষ্টায় ১৯৮৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় এ কলেজ। প্রতিষ্ঠার মাত্র তিন বছরের মাথায় ১৯৮৮ সালে কলেজটি সরকারী করণ করা হয়। বর্তমানে এই কলেজে বিজ্ঞান মানবিক ও বাণিজ্য বিভাগে ৭৫০ জন শিক্ষার্থী রয়েছে।

     এ জাতীয় আরো খবর