,

ভূমিখোর,মিথ্যা মামলাবাজ সুবহানের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সভা ও মানবন্ধন

মোঃ জামিল আহমদ,কসকনকপুর প্রতিনিধি:

৮ নং কসকনকপুর ইউনিয়নের ইউনিয়ন অফিস বাজারে বৃহস্পতিবার বাদ আছর ভাতিজা কর্তৃক চাচা আলহাজ্ব আয়াস আলীর বসতঘর ভাঙ্গা,গাছ-পালা কাঠা,এলাকার বাসীর উপর মিথ্যা মামলা এবং নিজ ছেলে উলঠো জেলে প্রদান এর প্রতিবাদে ভূমিখোর,মিথ্যা মামলাবাজ সুবহানের বিরুদ্ধে এলাকার সর্বস্তরের জনসাধারণের উদ্দ্যেগে এক বিশাল প্রতিবাদ সভা ও মানবন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।তাজুল ইসলামের পরিচালনায় এবং সাদিক মানসুরের কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে শুরু হওয়া প্রতিবাদ সভায় সভাপতিত্ব করেন ইনামতি গ্রামের বিশিষ্ট মুরব্বী আব্দুল মতিন চৌধুরী,বক্তব্য রাখেন ৮নং কসকনকপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক রিয়াজ,বিগত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আব্দুস সাত্তার মইন,নির্যাতিত ব্যাক্তি আলহাজ্ব আয়াস আলী, ১নং ওয়ার্ড সদস্য হেলাল আহমদ,৩ নং ওয়ার্ড সদস্য কবিরুল হাসান,হানিগ্রামের বিশিষ্ট মুরব্বী মাওঃ তৈয়বুর রহমান,কসকনকপুর গ্রামের মাহমুদুর রহমান,সালেহ আহমদ,বদরুল ইসলাম,নজরুল ইসলাম,৫ নং ওয়ার্ড সদস্য আব্দুল হাশিম,কয়েস আহমদ মেম্বার সহ প্রমুখ ব্যাক্তিবর্গ। উপস্হিত ছিলেন এলাকার শতশত জনগণ।বক্তারা বলেন এই মামলাবাজ সুবহান এলাকার একটি সনাক্তকারী সন্ত্রাস সে এই এলাকার জনগণের উপর একের পর এক মিথ্যা মামলা দিয়ে জনগণকে হয়রাণী করতেছে এবং যে ন্যায়ায়ের পক্ষে কথা বলে উলঠা তাকে মিথ্যা মামলা দিতেছে,চাচার ঘর ভাঙ্গার পর এলাকার জনগণ তাকে ধরে প্রশাসনের হাতে দিলে প্রশাসন টাকা খেয়ে মাত্র তিন দিনের মাতায় তাকে ছেড়ে দেয় এবং জেল থেকে বাহির হয়ে আয়াস আলির ছেলেকে মামলা দিয়ে উলঠো সে এক সপ্তাহ থেকে জেলে আছে ও এলাকার জনগণের উপর একের পর এক চাঁদাবাজি মামলা দিতেছে।তাই এলাকার জনগণ জকিগঞ্জ পুলিশ প্রশাসন কে হুশিয়ারী দিয়ে বলেন টাকা না খেয়ে সঠিক তদন্ত করে বিচার করার জন্য, অন্যথায় এলাকার জনগণ পুলিশের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে বাধ্য হবে এবং অবস্হা খুবই ভয়াবহ হবে।এই শান্তি প্রিয় এলাকা যেন এক ব্যাক্তির কারণে অশান্ত না হয়, সে জন্য সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে তাকে এলাকে থেকে অবাঞ্ছিত করতে হবে এবং গৃহহীন বয়োবৃদ্ধ চাচার থাকার জন্য গৃহ নির্মাণ করার জন্য বক্তারা সকলের সহযোগীতা চান।

     এ জাতীয় আরো খবর