,

লিটনের ১২১ রানে ভর করেই টারইগাররা এশিয়াকাপের ফাইনালে লড়ছে ভারতের বিপক্ষে

এশিয়া কাপে এর আগে দুবার ফাইনালে উঠে শিরোপা হাতছাড়া করেছিল বাংলাদেশ। পাকিস্তান ও ভারতের কাছে হেরে রানার্সআপ হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছিল। তৃতীয়বার ফাইনালে ভারতের মুখোমুখি হয় লাল-সবুজের দল। রোহিত শর্মার দলের বিপক্ষে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামে মাশরাফি-মুশফিকরা। ওপেনিং জুটির দৃঢ়তায় বাংলাদেশের শুরুটা দারুণ হয়েছে। পরে দ্রুত চার উইকেট হারালেও লিটন একপাশ আগেল রেখে দলকে বড় স্কোরের পথ দেখান।১২১ রানে মাঠ ছাড়লেও জয়ের আশায় লড়াই করছে বাংলাদেশ। বোলাররাই এখন আশা পূরণের সারথী ।

আজ শুক্রবার দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ৪৮ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২১৯ রান তুলেছে।
এর আগে মেহেদী হাসান মিরাজ ওপেনিংয়ে নেমে ৩৬ রানের একটা ইনিংস খেলে সাজঘরে ফিরেন। জাতীয় দলের হয়ে এবারই প্রথম উদ্বোধনীতে নেমে ভালো একটি ইনিংস খেলেন তিনি।

মিরাজের ইনিংসটি খুব একটা বড় না হলেও লিটন দাসের সঙ্গে উদ্বোধনীতে দারুণ একটি পার্টনারশিপ গড়েন। দুজনে মিলে করেন ১২০ রানের জুটি।

মিরাজ ফিরে যাওয়ার পর আরো তিনটি উইকেট হারিয়ে বসে বাংলাদেশ। দ্রুত সাজঘরে ফিরেন ইমরুল কায়েস (২), মুশফিকুর রহিম (৫) ও মোহাম্মদ মিঠুন (২)।

এদিকে বাংলাদেশ দলে একটি পরিবর্তন এসেছে। অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান মুমিনুল হকের জায়গায় নেওয়া স্পিনার নাজমুল ইসলাম অপুকে।

এ ছাড়া পুরো দলই অপরিবর্তিত রয়েছে। সাকিব আল হাসান নেই তাই দলের বোলিং শক্তি বাড়াতেই অপুকে নেওয়া হয়। চোটের কারণে সুপার ফোরের শেষ ম্যাচের আগেই দল থেকে ছিটকে পড়েন সাকিব।

বাংলাদেশ একাদশ : মাশরাফি বিন মুর্তজা, লিটন দাস, সৌম্য সরকার, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিঠুন, মাহমুদউল্লাহ, ইমরুল কায়েস, রুবেল হোসেন, মুস্তাফিজুর রহমান, মেহেদী হাসান মিরাজ ও নাজমুল ইসলাম অপু।

     এ জাতীয় আরো খবর