,

সিলেট-৫ : নৌকার কান্ডারী হতে চান সাবেক ছাত্রনেতা মোশতাক আহমেদ

জকিগঞ্জ::
ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক ঢাকাস্থ সিলেট বিভাগ আইনজীবি পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুপ্রীম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবি মোশতাক আহমেদ সিলেট ৫ (জকিগঞ্জ-কানাইঘাট) আসনে নৌকার মাঝি হয়ে লড়তে চান একাদশ সংসদ নির্বাচনে। ব্রিটিশ, পাকিস্থান ও বাংলাদেশ এই তিন আমলের সাবেক এমএলএ (সংসদ সদস্য) আব্দুল লতিফের ভাতিজা সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক, সিলেট মদন মোহন কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মোশতাক আহমদ দীর্ঘ প্রায় ৪০ বছর ধরে তার নির্বাচনী এলাকা জকিগঞ্জ কানাইঘাটের মানুষকে আইনী সহায়তার পাশাপাশি নানা ধরনের সেবা দিয়ে আসছেন। গত নবম ও দশম সংসদ নির্বাচনেও তিনি আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন। একাদশ নির্বাচনকে সামনে রেখে কোমর বেঁধে মাঠে নেমেছেন তিনি। তার সমর্থকদের নিয়ে চষে বেড়াচ্ছেন জকিগঞ্জ-কানাইঘাটের প্রত্যন্ত এলাকায়। বিগত বন্যায়ও ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে দাঁড়িয়েছেন তিনি। তার ছোট ভাই খলাছড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক কবির আহমদ টানা ২য় বারের মতো জকিগঞ্জ উপজেলা খলাছড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।
মোশতাক আহমদ বলেন, মানুষ আমাকে ভালোবাসে। আমিও মানুষকে যথাসাধ্য ভালোবাসা দিয়ে যাই। দলীয় সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে সেন্হ করেন। ৮০র দশকে স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে দলের বর্তমান সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমদসহ শীর্ষ নেতাদের সাথে কাজ করেছি বার বার কারাবরণও করেছি। রাজনৈতিক ও সামাজিক যোগাযোগের কারণে দলের বাইরেও আমাকে অনেকে ভোট দিবেন। দলীয় মনোনয়ন পেলে বিজয়ী হওয়ার ব্যাপারে আমি শতভাগ আশাবাদী। আসন্ন নির্বাচনকে সামনে রেখে স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি আওয়ামীলীগের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপপ্রচারের মাধ্যমে বিভ্রান্তি ছড়ানোর চেষ্টা চালাচ্ছে। আওয়ামীলীগের উন্নয়ন এবং সাফল্য সাধারণ মানুষের মধ্যে তুলে ধরে সরকারের পক্ষে জনমত সৃষ্টি করার লক্ষ্যে তার পক্ষ থেকে প্রজেক্টরের মাধ্যমে ডিজিটাল ক্যাম্পেইন কার্যক্রম চালাচ্ছেন জকিগঞ্জ-কানাইঘাটে। শেখ রাসেল স্মৃতি সংসদ জকিগঞ্জের সভাপতি রুহুল আমিন বলেন, মোশতাক আহমদ একজন পরিচ্ছন্ন রাজনীতিক হিসাবে তার নিজস্ব গ্রহণযোগ্যতা ও ভোট ব্যাংক রয়েছে। দলীয় মনোয়ন পেলে এ আসনে নৌকার বিজয় নিশ্চিত হবে।

 

     এ জাতীয় আরো খবর