,

স্বামীর মৃত্যুর তথ্য গোপন করে টাকা উত্তোলন, স্ত্রী গ্রেফতার

স্বামীর মৃত্যুর কথা গোপন রেখে ব্যাংক থেকে এক কোটি ৪০ লাখ টাকা তুলে নেওয়ার মামলায় অভিযুক্ত স্ত্রী আনজু কাপুরকে গ্রেফতার করেছে সিআইডি। মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) সকালে গুলশান থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

সিআইডির অতিরিক্ত ডিআইজি শেখ ওমর ফারুক বাংলা ট্রিবিউনকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন। এদিকে গ্রেফতারের বিষয়টি মঙ্গলবার বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি মহি উদ্দিন শামীমের সমন্বয়ে গঠিত ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চকে অবহিত করেছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন (উত্তর) সিআইডির উপ-পুলিশ পরিদর্শক রাশেদুজ্জামান। আদালতে দুই বোনের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ। অন্যদিকে দুই মেয়ের সৎ মা আনজু কাপুরের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন মাসউদ আর সোবহান। আর রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিন উদ্দিন মানিক।

সিআইডি জানায়, প্রাথমিকভাবে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় আনজু কাপুরকে গ্রেফতার করা হয়। এরমধ্যে অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়। সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার খালিদুল হক হাওলাদার বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, মোস্তফা জগলুল ওয়াহিদের ব্যাংক হিসাব পরিচালনার জন্য স্ত্রী আনজু কাপুরকে ম্যান্ডেট দেওয়া হয়। বিভিন্ন সময় তিনি তার ব্যাংক হিসাব পরিচালনা করতেন। বিপুল অঙ্কের টাকা ব্যাংক থেকে কীভাবে উঠানো হলো, সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের কেউ জড়িত রয়েছে কিনা এসব বিষয় খতিয়ে দেখছে সিআইডি।

প্রয়াত মোস্তফা জগলুল ওয়াহিদ পেশায় একজন বৈমানিক ছিলেন। তিনি প্রখ্যাত সঙ্গীত শিল্পী ফেরদৌস ওয়াহিদের ভাই। জগলুলের স্ত্রী আনজু কাপুর একজন ভারতীয় নাগরিক। ২০২০ সালের ১০ অক্টোবর মারা যান জগলুল আহমেদ। পরের দিন ১১ অক্টোবর সিটি ব্যাংকের গুলশান শাখা থেকে এক কোটি ৪০ লাখ টাকা তুলে নেওয়া হয়। এ ঘটনায় জগলুল আহমেদের মেয়ে মুশফিকা মোস্তফা ২০২০ সালের ২৫ ডিসেম্বর গুলশান থানায় মামলা দায়ের করেন।

     এ জাতীয় আরো খবর