,

রংপুরে এগিয়ে জাতীয় পার্টির মোস্তফা

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সোয়া ৭টা নাগাদ ঘোষিত ফলে দেখা যাচ্ছে, বিপুল ভোটে এগিয়ে আছেন জাতীয় পার্টির মেয়র প্রার্থী মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা।

১৯৩টি কেন্দ্রের মধ্যে ওই সময় পর্যন্ত ২৫টির ফল প্রকাশ হয়। তাতে লাঙ্গল প্রতীকে মোস্তফা পেয়েছেন ১৮ হাজার ৯৮১ ভোট।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী ও বিদায়ী মেয়র সরফুদ্দীন আহমেদ ঝন্টু নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ৬ হাজার ৭৭৮ ভোট।

তার পেছনেই আছেন ধানের শীষ প্রতীকে বিএনপির প্রার্থী কাওসার জামান বাবলা; তার ভোট ৫ হাজার ৮১টি।

এই নির্বাচনে মেয়র পদে দলীয় প্রতীকে সাত প্রার্থীর সঙ্গে ৩৩ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন ২৭৬ জন।

সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ১৯৩টি কেন্দ্রে একযোগে ভোটগ্রহণ শেষে কেন্দ্রে কেন্দ্রে শুরু হয় গণনা।

বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে তথ্য পাওয়ার পর পুলিশ কমিউনিটি হলে বসানো নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে ফল ঘোষণা করা হচ্ছে। সেখানে রয়েছেন এ নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা সুভাষ চন্দ্র সরকার।

এ নির্বাচনে ভোটার ছিলেন প্রায় ৪ লাখ। তার মধ্যে বেলা দেড়টা পর্যন্ত ৪৬ শতাংশ ভোট পড়ার তথ্য জানিয়ে সুভাষ বিকালে বলেছিলেন, শেষ পর্যন্ত ভোটদানের হার ৭০ শতাংশ হতে পারে বলে তারা আশা করছেন।

এবারের নির্বাচনে কোনো কেন্দ্র থেকেই গোলযোগের কোনো খবর আসেনি, যাকে নজিরবিহীন বলছেন ভোটাররা।

ঢাকায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদাও বলেছেন, ‘সুষ্ঠু ও সুন্দর’ পরিবেশে উৎসবের আমেজে ভোট হওয়ায় কমিশন ‘সন্তুষ্ট’।

ভোট নিয়ে আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টির কোনো অভিযোগ না থাকলেও বিএনপি বলেছে, সুষ্ঠু ভোট আয়োজনে ব্যর্থ হয়েছে ইসি।

     এ জাতীয় আরো খবর